ছোট্টকালের একটি দিন



সকাল ৭ টা - বিছানা থেকে আম্মু টেনে তুললো... আবার সোফায় গিয়ে ঘুম দিলাম

সকাল ৭.২০ - কোনমতে ব্রাশ করে ডাইনিং টেবিলে বসলাম... আম্মু পানি ভাত দিল... আধো ঘুম অবস্থায় কিছুদুর খাইলাম... তারপর একটু চা

সকাল ৭.৪০ - জাহান আন্টি অথবা আম্মু কেউ একজন আমাকে ইউনিফর্ম পরালো... জুতা পরানোর সময় ব্যাপক পেইন দিলাম

সকাল ৭.৫০ - সিলভার বেলস স্কুলের দিকে হাটা দিলাম... হেটে যাইতে ৬/৭ মিনিটের বেশি লাগেনা... বাবুল মামা আমার ব্যাগ কাধে নিয়ে ইস্কুলে দিয়ে আসলেন

সকাল ৮.০০ - ক্লাসে ঢুকে নির্ধারিত বেঞ্ছে বসলাম ... ক্লাস টিচার আসার সাথে সাথে সবাই একসাথে দাঁড়িয়ে বললাম, "গুড মর্নিং ম্যাডাম!"

সকাল ৯.০০ - ইস্কুলে আবার ক্যাপ নিয়ে গেসিলাম... ক্লাসের ফাকে ফাকে হানিকে লুক দিচ্ছিলাম আর চোখাচোখি হইলে দুইজনেরই মুচকি হাসি

টিফিন ব্রেক - টিফিনটা কাউকে বিলি করে দিয়ে মাঠে গিয়ে চোর পুলিশ খেলা শুরু করলাম... আমিই বার বার পুলিশ আর হানি হইল চোর, এই অবস্থা দেখে মিষ্টি আমাকে কড়া লুক দিল... যাই হোক!

পিছনের বেঞ্চে বসে কলম ফাইট খেলা হচ্ছিল... কিভাবে জানি ম্যাডাম টের পেয়ে গেসে... এরপর একটা মেয়েকে দিয়ে পুরা বারান্দা কান ধরে হাটাইলো... আমার চেয়ে পিচকা পোলাপান এই দৃশ্য দেখে হাসাহাসি শুরু করল...

ইস্কুল ছুটি - বের হয়ে গেটের কাছে আচার ওয়ালা থেকে আচার, ঝালমুড়ি ওয়ালা থেকে ঝালমুড়ি আর আইসক্রিম ওয়ালা থেকে আইসক্রিম কিনলাম, আর আমি আর রুবায়েত বাসার দিকে হাটা দিলাম, পাশ থেকে আমাদেরকে খেয়াল রাখতেসেন আমার কোন এক মামা

বাসায় ফিরে আবার সেই খাওয়া-দাওয়া... ভাত অর্ধেক খেয়ে পারভেজ কে দিয়ে কাজ সেড়ে দিলাম... কাজ শেষ করে দেয়া হচ্ছে কোড ওয়ার্ড... এটার মানে আমি, আমার বড় ভাই আর আমাদের বাসায় পারভেজ তখন কাজ করত, সে জানে... সময় সুযোগ বুঝে আব্বু-আম্মু যখন আসে পাশে থাকবেনা, পারভেজ টেবিল থেকে অন্যান্য প্লেট ধোয়ার জন্য নিয়ে যাওয়ার সময় ওই প্লেটে আমরা আমাদের ভাত দিয়ে দিতাম... এটাই হইল 'কাজ সেড়ে দেওয়া'

দুপুর ৩টা - ইয়াসমিন ম্যাডামের বাসায় পড়তে যাওয়া... গিয়ে ঊর্মি আপুর সাথে ব্যাল্কনি গিয়ে খেলাধুলা করা, সাথে রুবায়েত আর নিশাত, মাঝে মধ্যে হিরন মামার আমাদের সাথে যোগদান... হিরন মামার রুমে লন্ডন ব্রিজের উপর কেটে (লিটারেলি) বসানো একটা অসাম ছবি ছিল... ব্যাপার বুঝতে অনেক টাইম লাগসিল

বিকাল ৪.৩০ - ইয়াসমিন ম্যাডাম খাতা চেক করে, হোম ওয়ার্ক দিলেন আর ততক্ষনে আমার মামা এসে বসে আসে আমাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য

বাসায় গিয়ে এক গ্লাস গরুর দুধ খাইলাম!

তারপর ব্যাট-বল নিয়ে রাস্তায়... সামনের বাসার বিজন ভাই, পাশের বাসার সাইদুল, সাম্নের বাসার হাসু, লিংকন, টিটু, আমি, নাহিদ, রুবায়েত মিলে রাস্তায় খেলা শুরু... বল নালায় পড়লে রুবায়েতকেই তুলতে হবে... খেলতে গিয়ে উকিল সাহবের বাসার কাচ ভেঙ্গে গেল... মুহুর্তের মধ্যে সবাই গায়েব... ! উকিল সাহেব বের হয়ে কাউরে পাইলেন না ঝাড়ি দেয়ার জন্য...

এরপর মামা-খালাদের সাথে ছাদে উঠলাম, ছাদে আব্বুর করা বাগান... পেয়ারা পাড়লাম একটা, নিয়েই মোটামুটি খাওয়া শুরু...

মাগরিবের আজান হয়ার সাথে সাথে বাসায় গিয়ে ঢুকলাম... ঢুকেই ফ্রিজ থেকে বের করে ঠান্ডা পানি...
এরপর হাত মুখ ধুয়ে নাস্তা করলাম

বাইরে ভটভট শব্দ... আব্বুর ভেস্পার শব্দ... যে যে অবস্থানে ছিলাম, সেই অবস্থানেই ভদ্র হয়ে গেলাম...

হাল্কা পড়াশুনার ভান... বইয়ের মাঝখানে চাচা-চৌধুরির কমিক্স

রাত ৮.৩০ - টিভিতে নাটক চলতেসে... বাসার সবাই মিলে নাটক দেখতে বসলাম... নায়ক নায়িকার হাত ধরলেই কেমন কেমন জানি লাগে, যাহোক, অ্যাড শুরু হইল, দৌড় দিলাম নানু বাসায়... ওখানে মামা-খালার সাথে বসে নাটকের বাকি অংশ দেখলাম... ইউসুফ নানু মাঝখানে আবার সিভিট খাওয়াইলো, আর বড় মামা এই সুযোগে আমাকে দিয়ে মাথাটা একটু টিপাই নিল... এরপর নানুর কাছে গেলাম কিস্তা শুনতে... নানু আমাদের কিস্তা শুনাইলো...
এরপর আম্মু এসে নিয়ে গেল, ভাত দিসে

ভাত অর্ধেক খেয়ে নিয়ম অনুযায় 'কাজ সাড়লাম' পারভেজকে দিয়ে

এরপর আবার র‍্যাভেন টাইপ কিছু একটা দেখলাম, একি কাহিনী... কেমন কেমন জানি লাগে

রাতে বড় মামা আর আব্বু আড্ডা দিতে বসলো, কোথা থেকে জানি ইসলাম নানু চলে আসল... বড়দের কথা গিললাম বসে বসে... ১২ টার দিকে ঘুমাইতে পাঠানো হইল আমাদের কে, আমি আর নাহিদ আজাইরা পক পক করা শুরু করলাম, একটু পরে আব্বু এসে মশারির ভিতরে ঢুকে মশা মারা শুরু করল... মোটামুটি ৪/৫টা মশা মেরে আব্বু শান্তি পাইল...

রাত ১টার দিকে বাসায় আজাদ মামা আসল আড্ডা দিতে... আজাদ মামা কে নিয়ে কি একটা কথায় আমি আর নাহিদ ব্যাপক হাসাহাসি শুরু করলাম, কোন সময় আব্বু রুমে আসছে টের পাইনাই... এরপর কিছু শব্দ... তারপর সাথে সাথে আমরা ঘুম...

খুবই সাদামাটা, কিন্তু এখনো অনেক রঙিন...

2 comments:

  1. অসাধারণ হইসে দোস্ত! অসাধারন!

    ReplyDelete
  2. ashb din chaileo r feere ashbena.... :-( G-sun

    ReplyDelete

Please share your precious thoughts!